গত ১৬ সেপ্টেম্বর প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য এবং চোখ ও পায়ের চিকিৎসা করানোর জন্য লন্ডনে গিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। সেখানেই স্বাস্থ্য পরীক্ষায় ক্যানসার ধরা পড়েছে তার।

লন্ডনে চিকিৎসা শেষে ২১ নভেম্বর দেশে ফিরলেও তার লন্ডনের সফরের বিষয়ে এবং চিকিৎসা নিয়ে কাউকেই তেমন বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। সর্বদাই কঠোর গোপনীয়তা রক্ষা করা হয়েছে পুরো সফর ঘিরে। সম্প্রতি একটি বিশেষ গোপণসূত্রের মাধ্যমে জানা গেছে, লন্ডনে স্বাস্থ্যপরীক্ষার পরই খালেদার পাকস্থলিতে ক্যান্সার ধরা পরে। অধিক মদ্যপান-ই তার পাকস্থলি ক্যান্সারের মূল কারণ। তাই এবিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমলচনার ভয়ে সবার কাছে থেকে আড়াল করা হয়েছে। এমনকি সিনিয়র কয়েকজন নেতা ছাড়া, দলীয় নেতাকর্মীরাও খালেদার ক্যানসারের ব্যাপারে কিছু জানেন না।

এদিকে খালেদার পাকস্থলিতে ক্যানসার হয়েছে খবরটি জানাজানি হয়ে যাবার পর বিএনপির নেতা-কর্মীদের মাঝে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। গতপরশু ইসলামী ঐক্যজোট বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট থেকে বেড়িয়ে যাওয়ার পিছনেও খালেদার অধিক মদ্যপানে পাকস্থলি ক্যানসার হওয়ার বিষয়টিই মূল কারণ হিসেবে কাজ করেছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে।

comments