আসন ভাগাভাগি নিয়ে ভাঙ্গনের মুখে ২০ দলীয় জোট

0
1

আসন ভাগাভাগি নিয়ে ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট। আসন নির্ধারন না করে দিলে জোট ছাড়ার হুমকি দিয়েছেন ২০ দলীয় জোটে থাকা শরীক দলের নেতারা। বিএনপির চেয়ারপারসনের জেলে থাকা এবং বিএনপি নেতৃস্থানীয় নেতাদের নিস্ক্রিয় থাকা ভাবিয়ে তুলেছে শরীক দলগুলোকে।

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জেলে থাকাকে উপেক্ষা করে আগামি সংসদ নির্বাচনে যেতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে শরীক দলের নেতারা। তারা জোটে থাকলে এখনই আসন নির্ধারন করে নিয়ে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে চান। এ নিয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সাথে এখাধিক বার বৈঠকেও বসেছেন শরীক দলের নেতারা। কল্যান পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব) সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম বলেন, আমরা সরকারের অনেক প্রোগ্রামে দাওয়াত পেয়েও যাইনি বিএনপির জন্য, এখন তারা যদি আমাদের আসন নির্ধারন করে না দেন তবে জোটে থাকার কোন মানে দেখি না। আসন নির্ধারন না হলে কল্যান পার্টি একাদশ নির্বাচনে ৩০০ আসনেই প্রার্থী দবে বলেও ঘোষণা দেন দলটির নেতা। এদিকে এলডিপির যুগ্ম-মহাসচিব সাহাদাত হোসেন সেলিম বলেন, আগে ফয়সালা করুন কাকে কোন আসন দিবেন, শেষ সময়ে এসে বলবেন আমরা (বিএনপি) নির্বাচনে যাবো না এটা তো হতে পারে না, জো্টে থাকা মানে এই না সব স্বিদ্ধান্ত আপনারা (বিএনপি) একা নিবেন আর আমরা আঙ্গুল চুষবো তা আর হবে না। এখনই আসন নির্ধারন করে দেন আমাদের, আমরা আগামি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতা করতে চাই। অপরদিকে এলডিপির চেয়ারম্যান অলি আহমদ বলেন দলের শরীকদের প্রতি যথাযথ সম্মান না দেখালে ঐক্য ভেঙ্গে যাবে, আমারা নির্বাচনে যেতে প্রস্তুত। বিএনপি যদি আমাদের আসন নির্ধারন করে না দেন এখনই তবে আমরা জোট ছেড়ে একক নির্বাচনে যাবো বলেও হুশিয়ারি দেন এই নেতা। এদিকে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভি জানান, দলের চেয়ারপারসন জেলে আসেন, আমরা তার সাথে পরামর্শ করে স্বীদ্ধান্ত নিবো। তবে কেউ যদি জোট ছেড়ে যেতে চায় আমাদের আপত্তি নেই, একাদশতম নির্বাচনে বিএনপি একাই মাঠে লড়বে।

উল্লেখ্য, ২০ দলীয় জোটের নেতৃত্বদেয়া বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম জিয়া দূর্নীতির সাজা পেয়ে কারাগারে আছেন এবং দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপাসন তারেক রহমান দূর্নীতির সাজা ও ১৭টা মামলার আসামি হয়ে লন্ডনে পলাতক আছেন।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here