বিএনপির ভাঙ্গণ ঠেকাতে পারবেন বেগম জিয়া?

0
2

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য  ৯৩ দিন লন্ডনে অবস্থানকালে দল গোছানো, অান্দোলন ও নির্বাচনী পরিকল্পনা সেরেছেন দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে। সেখানে মা-ছেলে দুই জনই একমত শেখ হাসিনার অধীনে কোন নির্বাচনে যাবে না বিএনপি। কিন্তু সামনের নির্বাচনে অংশ না নিলে বিএনপির সম্ভাব্য ভাঙ্গণ ঠেকানোও বেগম জিয়ার পক্ষে সম্ভ নয়।

বিএনপির তৃণমূল থেকে কেন্দ্রের অবস্থান খালেদা জিয়া-তারেক রহমানের সঙ্গে একমত না। তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা কেন্দ্রীয় নেতাদেরকে চাপে রেখেছেন নির্বাচনে আসার জন্য। রাজনীতি টিকিয়ে রাখতে কেন্দ্রীয় নেতারা বুঝেছেন তাদের নির্বাচনে আসা ছাড়া কোন উপায় নেই।

এমন পরিস্থিতি কেন্দ্রীয় নেতারা কোন প্রকার রাখঢাক ছাড়াই বেগম জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অবস্থান নিয়েছেন। তারা নির্বাচনে যে কোন উপায়েই হোক অংশ নিতে চান।

গত ৩ নভেম্বর রাজধানীতে স্বাধীনতা ফোরামের আলোচনা সভায় নির্বাচনে অংশ নিতে ইচ্ছুক এমন কেন্দ্রীয় নেতাদের প্রতিনিধি হিসেবে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ঘোষণা দিয়েছেন, আগামী নির্বাচনে তারা অংশগ্রহণ করবেই। মওদুদ আহমদের এই কথাতে লন্ডনে অবস্থানরত তারেক রহমান ষড়যন্ত্রের অাভাস পেয়েছেন বলে বিএনপির একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে।

বিএনপির ভাইয়া সিন্ডিকেটের সদস্য তথা তারেক রহমানের কাছের বলে পরিচিত কেন্দ্রীয় এক নেতা নাম প্রকাশ করার শর্তে বলেন, ‘বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর অধীনে নির্বাচন করে ক্ষমতায় যাওয়া চিন্তা ম্যাডাম ও ভাইয়া কেউই আশা করে না। এর মাঝে কিছু সিনিয়র নেতা নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য ম্যাডামকে উপর্যুপরি চাপ দেয়াতে ভাইয়া নিশ্চিত বিএনপির কিছু সিনিয়র নেতা সরকারের সঙ্গে আতাত করেছেন।’

বিএনপির একাধিক জেলা ও থানা পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, তারা নিজেরাও বিশ্বাস করে না বিএনপি ক্ষমতায় অাসবে। কিন্তু তাদের চাওয়া রাজনীতি করতে হলে বা এলাকায় টিকে থাকতে হলে নির্বাচনে অাসতে হবে। ২০১৪ সারে মত ভুল করলে আগামী কয়েক দশক এর খেসারত দিতে হবে বিএনপিকে এমনটাই মনে করেন অনেক জেলা ও থানা পর্যায়ের নেতারা।

বিএনপির শক্ত ঘাটি বলে পরিচিত রাজশাহীর এক নেতা আক্ষেপের সুরে বলেন, ভাই ক্ষমতায় না আসি বিরোধী দলের আসনটা থাকলেও তো মনে একটা জোর থাকে। আমরা রাস্তায় চললে এখন কুত্তাও পাত্তা দেয় না। এভাবে আর কতদিন রাজনীতি চালিয়ে যাওয়া সম্ভব?

বিএনপির একাধিক সুত্রে জানা গেছে বেগম জিয়া সম্প্রতি আদালতে চলমান তার মামলা  নিয়ে বিষয়ে বেশ চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। তার সামনে অনেক চ্যালেঞ্জ থাকলেও এখন প্রধান চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিয়েছে মামলা থেকে নিজেকে বাঁচানো এবং সম্ভাব্য দলীয় ভাঙ্গণরোধ করা। বেগম জিয়াও বিশ্বাস করেন এবার নির্বাচনে না আসলে বিএনপির ভাঙ্গণ অবশ্যম্ভাবী।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here