নামাজের স্থানে সাড়ে ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করলো জামাত নেতা

0
1

দিনাজপুর জেলার অন্তর্গত কাহারোল উপজেলায় অবস্থিত কাহারোল মাদ্রাসায় সাড়ে ৪ বছরের একটি অবুঝ শিশু কন্যাকে ধর্ষণের দায়ে নশিপুর গম গবেষণা কেন্দ্র মসজিদের পেশ ইমাম ও জামাত নেতা মো. সাখাওয়াত হোসেনকে (৪২) গ্রেফতার করেছে কাহারোল থানা পুলিশ।

গতকাল ৮ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কাহারোল উপজেলার ৫নং সুন্দরপুর ইউনিয়নের গড়নুরপুর গ্রামের খোশালপুর ফোরকানীয়া মাদ্রাসার ভেতরের নামাজ পড়ার স্থানে ইমাম সাখাওয়াত আরবী পড়ানোর নাম করে শিশুটিকে কোলে বসিয়ে ধষর্ণ করেন। সাখাওয়াত হোসেন স্থানীয় জামাতের রাজনীতির সাথে জড়িত। জামাতের জ্বালাও-পোড়াও আন্দোলনে সক্রিয় অংশগ্রহনের কারণে এই নেতার নামে একাধিক মামলাও রয়েছে।

জামাত নেতা সাখাওয়াত কোলে বসিয়ে যখন শিশুটিকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় তখন অবুঝ শিশুটি ব্যাথার চোটে চিৎকার করে উঠায় তাকে তাড়াতাড়ি ছেড়ে দেন সাখাওয়াত। সেই সাথে তাকে ভুলিয়ে-ভালিয়ে কান্না থামানোরও চেষ্টা করেন এই নরাধম ইমাম।

কাহারোল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আইয়ুব আলীর নিকট এভাবেই ইমাম সাখাওয়াত পুরো ঘটনা স্বীকার করেছেন। ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন কাহারোল থানার অফিসার ইনচার্জ।

ঘটনার বিবরণ থেকে আরও জানা গেছে, ধর্ষণের চেষ্টার পর শিশুটি বাড়িতে গিয়ে তার মা-বাবাকে ঘটনাটি বলে দেয়। ঘটনাটি জানাজানি হলে এলাকার লোকজন এসে ধর্ষক সাখাওয়াত হোসেনকে বেদম মারপিট করে। পরে কাহারোল থানায় খবর দিলে থানার এসআই এরশাদ, এএসআই আনোয়ার হোসেন ও ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে সাখাওয়াতকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ সংবাদ লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে কাহারোল থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আয়ুব আলী জানিয়েছেন।
জানা গেছে, জামাত নেতা সাখাওয়াত হোসেন জয়পুরহাট জেলার পাঁচ বিবি উপজেলার রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত ফয়েজ উদ্দীনের পুত্র।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here