আগামী নির্বাচন নিয়ে তারেক-খালেদার দ্বন্দ্ব চরমে

0
1

আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ প্রশ্নে বিএনপিতে দুই ধরনের মত রয়েছে। দলের যে অংশটি তারেক জিয়া সমর্থিত তারা খালেদা জিয়াকে ছাড়াই নির্বাচনে অংশ নিতে রাজি। এই অংশটি কোনোভাবেই নির্বাচন বর্জনের পক্ষে নয় এমনকি খালেদা জিয়া কারাগারে গেলেও।

বিএনপির এই অংশ বলছে, তারেক জিয়ার নির্দেশেই এই নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপি। তাই আপাতত খালেদা জিয়া নির্বাচনে যাবে কি যাবেনা তা নিয়ে তার মতামতের কোন তোয়াক্কাই করছেনা বিএনপি।

বেগম জিয়ার মামলা প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলায় জেল দিতে পারে আদালত। এটার সম্ভবনা আছে। কারন মামলায় তার অভিযোগ প্রমাণিত হয়েছে। তাই তিনি জেলে থাকলেও আমরা নির্বাচনে যাবো।’

বিএনপির নির্বাচনে যেতে অনাগ্রহী অংশটির প্রভাবেই বিএনপি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বর্জন করেছিল বলে মনে করা হয়। তাতে তারেক সমর্থিত অংশ বলছে, ওই নির্বাচনে অংশ নিলে বিএনপি এতটা বিপর্যয়ের মুখে না-ও পড়তে পারত। নির্বাচন বর্জন প্রসঙ্গে প্রথম থেকেই খালেদা জিয়াকেই দোষারোপ করে আসছে দলটি।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘খালেদা জিয়া যদি বিএনপিকে আবার নির্বাচন থেকে দূরে রাখতে চায় তাহলে বিএনপি শেষ পর্যন্ত বাঁকা পথেই হাঁটবে।

সম্প্রতি বিএনপি ৫৯৬ জনের কমিটি করছে। কয়দিন পরপর বলে আন্দোলন করবে। প্রথমে ঘোষণা দিল রোজার ঈদের পর, তারপর বলল কোরবানির ঈদের পর। এরপর বলে পরীক্ষার পর। এইভাবেই মাস যায়, বছর যায়, আন্দোলন আর হয় না। কারণ, মরা গাঙে কখনো জোয়ার আসে না।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here