খালেদাকে সরিয়ে দেয়ার কথা ভাবছে তারেক!

1
3

অবশেষে বেগম খালেদা জিয়া নিজেই স্বীকার করলেন তার দলেই তাকে মাইনাস করার ষড়যন্ত্র চলছে। গতকাল রাতে গুলশানে চেয়ারপার্সনের কার্যালয়ে দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বক্তব্য দানকালে খালেদা জিয়া বলেন, ‘দেশে, দেশের বাইরে কিংবা অফিসে বসে কারা ষড়যন্ত্র করছেন, কে কার সঙ্গে ঘুরছেন; তা আমি জানি।

গত ৮ বছরে খালেদার ভুল ও ব্যর্থ নেতৃত্বে বিএনপি নামের রাজনৈতিক দলটি প্রতিষ্ঠার ৩৯ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বিপর্যস্ত অবস্থায় পতিত হয়েছে। ২০১৪ সালে নির্বাচন বানচালের নামে এবং ২০১৫ সালে ৯৩ দিনে খালেদার অবরোধ নামের সন্ত্রাসী তৎপরতায় কয়েকশ’ লোক নিহত এবং দেশের হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদ বিনষ্ট হয়। ৯৩ দিনের পেট্রল বোমা আন্দোলনে শুধু জনগণ নয়, বিএনপি ও জোটের নেতাকর্মীরাও রাস্তায় নামেনি। খালেদার নেতৃত্বে দুই বছরের দুটি ব্যর্থ আন্দোলন বিএনপি নামের দলটিকে একেবারে নিশ্চিহ্ন করে দিয়েছে।

এই ব্যাপারে ফখরুলের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘ খালেদা জিয়ার আসলে এখন রাজনীতি থেকে সরে আসা উচিত। জনগণ আসলে আর তার ডাকে সাড়া দিচ্ছেনা। তারা তারেক রহমানকে বিএনপির চেয়ারপার্সন হিসেবে দেখতে চাচ্ছে’।

এই বিষয়ে রিজভী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বাংলাদেশ টাইমসকে জানান, স্থায়ী কমিটির অনেক নেতা ও বিএনপির স্থানীয় এমপিরা এখন খালেদা জিয়াকে এড়িয়ে চলছেন। আর এই এড়িয়ে চলার ব্যাপারে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন তারেক রহমান নিজেই।

স্থায়ী কমিটির অনেক নেতাই আপাতত খালেদাকে ছাড়াই দল কীভাবে চলবে সে ব্যাপারে দিক-নির্দেশনা দিচ্ছেন দলের নেতা-কর্মীদের। দুই একজন ছাড়া কেউই এখন খালেদা জিয়ার কথা শুনছেন না । শেষ পর্যন্ত ছেলে তারেক রহমানের নির্দেশে দল থেকে মাইনাস হয়ে খুবই ভেঙ্গে পড়েছেন খালেদা জিয়া।

comments

1 COMMENT

  1. দলের প্রধান উপদেশ্তহা বাইয়ে রাখা যেতে পারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here