বিএনপি ভেঙ্গে হচ্ছে নতুন দল ‘তৃণমূল বিএনপি’!

0
0

‘তৃণমূল বিএনপি’ নামে নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপির সাবেক নেতা ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা। তিনি বলেছেন, খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বিএনপি একটি ‘ব্যর্থ দলে’ পরিণত হয়েছে।

শুক্রবার ঢাকার একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করে নতুন দল গঠনের এই ঘোষণা দেন নাজমুল হুদা। তিনি জানান,‘তৃণমূল বিএনপির প্রতীক হিসেবে থাকবে ‘ধানের ছড়া’। আর পল্টনের মেহেরবা প্লাজায় হবে দলের মূল কার্যালয়।

তিনি বলেন, “বিএনপি নামক দলটি আজ মুখ থুবড়ে পড়েছে। এই দল এখন আর জিয়ার আদর্শে নেই। জামায়াতের প্রবঞ্চনা আর শীর্ষ নেত্রীবৃন্দের ব্যর্থতার কারণে জনগন এখন আর এই দলটির পাশে নেই। বরং বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের জন্য মানুষ এখন বিএনপিকে ভয় পায়, ঘৃণা করে। মিস্টার টেন পারসেন্ট খ্যাত তারেকের নির্দেশ মেনে দল চালানোয় বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন এই দলটি সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। আমি মনেকরি বেগম জিয়ার এটাই সবচাইতে বড় ভুল।”

বিএনপির প্রতিষ্ঠাকালীন এই সদস্য মনেকরেন, ‘শীর্ষ নেতৃত্বে পরিবর্তন না এলে বিএনপির আর ঘুরে দাঁড়ানোর উপায় নেই।’ বিএনপির তৃণমূল এখন চরম আস্থাহীনতায় ভুগছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে হুদা বলেন, “আমি মনে করছি, নেতা-নেত্রীর কারণে কোটি কোটি মানুষের সমর্থনপুষ্ট বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন হতে দেয়া যাবে না। বিএনপির যাত্রা নতুন করে শুরু করতে হবে নতুন নামে। এই লক্ষ্যে তৃণমূল বিএনপির যাত্রা শুরু করলাম।”

এসময় যুদ্ধাপরাধের বিষয়টিও আলোচনায় উঠে এলে সাকা কে নিয়ে বিএনপির করা মন্তব্যের তীব্র সমালচনা করেন তিনি। আদালতে প্রমাণিত সেটেলড বিষয় নিয়ে সাকার পক্ষে বিএনপির এই বক্তব্য সম্পূর্ণ অনভিপ্রেত বলে মনেকরেন নাজমুল হুদা। এর মাধ্যমে বিএনপির নৈতিকতাও প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

হোটেল ওয়েস্টিনে এই সংবাদ সম্মেলনে মঞ্চে নাজমুল হুদার পাশে ছিলেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) একাংশের চেয়ারম্যান এম নাজিমউদ্দিন আল আজাদ, যিনি এইচ এম এরশাদের সরকারে ধর্মমন্ত্রী ছিলেন।

এছাড়া লেবার পার্টির একাংশের চেয়ারম্যান সেকান্দর আলী মনি, গণতান্ত্রিক আন্দোলনের চেয়ারম্যান এ আর এম জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও বাংলাদেশ পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির চেয়ারম্যান মো. জামাল উদ্দিনও মঞ্চে ছিলেন। এর মধ্যে এলডিপি ও লেবার পার্টির আরেক অংশ বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের সঙ্গে রয়েছে।

রাশিয়া দূতাবাসের দ্বিতীয় সচিব ক্রিস্টিনা বয়কোকেও সংবাদ সম্মেলনে দেখা যায়। মঞ্চের পেছনে ব্যানারে দেখা যায় ‘তৃনমূল বিএনপি’র লাল সবুজ পতাকা।

লিখিত বক্তব্যে নাজমুল হুদা বলেন, “মাঠ পর্যায়ে বিএনপির ত্রাহি অবস্থা। দলটি পরিচালিত হচ্ছে উত্তারাধিকার সূত্রে লন্ডন থেকে নির্দেশিত পথে। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান যে রাজনীতি করে গেছেন, দুঃখজনক হলেও সত্য, বেগম খালেদা জিয়ার রাজনীতি ঠিক তার বিপরীত। দলীয় স্বার্থকে সম্পূর্ণভাবে বিসর্জন দিয়ে বিএনপি নিবেদিত ব্যক্তিস্বার্থে।”

হুদা বলেন, বিএনপি থেকে যারা ‘ছিটকে’ পড়েছেন, ‘বঞ্চিত’ হয়েছেন, বিভিন্ন কারণে বিএনপির রাজনীতি ‘করতে পারছেন না’, তাদের জন্য তৃণমূল বিএনপি একটি ‘প্ল্যাটফরম’ হবে। শুধু তাই নয়, ইতোমধ্যেই তৃণমূলের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করেছি। আস্থাহীনতায় ভোগা তৃণমূলের কর্মীরাও নতুন নেতৃত্ব চায়। অনেকে নতুনভাবে বিএনপি করতে চান। কিন্তু বর্তমান বিএনপির বেহাল দশা দেখে তাদের অনেকে এগিয়ে আসছেন না। আমি একটা অপুরচুনিটি ওপেন করেছি মাত্র। এই ‘তৃণমূল বিএনপি’-ই হবে সকলের আস্থার দল। জিয়ার আদর্শেই পরিচালিত হবে আমাদের ‘তৃণমূল বিএনপি’।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here