তারেকের চাপে মুখপাত্র ফখরুল, আসছে পেট্রোল বোমার আন্দোলন

0
1

জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রবের বদলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র করা হয়েছে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে। শনিবার মতিঝিলে ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন এর চেম্বারে বৈঠক থেকে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় বলে জানান ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা মাহমুদুর রহমান মান্না।

এর আগে জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রবকে মুখপাত্র করা হয়। কয়েকদিন পরই কি কারণে বিএনপি মহাসচিবকে মুখপাত্র করা হয় জানতে চাইলে মান্না বলেন, এর সুনির্দিষ্ট কোনো কারণ নেই।

তবে বিএনপির সূত্র থেকে জানা যায়, কামাল হোসেন ও কামালের ওপর ভরসা করতে পারছেনা বিএনপি। গণভবনে সংলাপে যাওয়াকে কেন্দ্র করে লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন তারেক রহমানের রোষানলে পড়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলগমীর। তারেক বিএনপির একাধিক শীর্ষ নেতাকে ফোনে বিভিন্ন ব্যাপারে
তিরস্কার করেন। কামাল হোসেনের সংলাপ নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন তারেক রহমান। তাই তারেক চান জাতীয় ৈঐক্যফ্রন্টের লাইম লাইটে বিএনপির কেউ থাকুক। তারেক রহমান পুরোদমে যুক্তফ্রন্টকে কামাল-মান্না-রবের কাছে ছেড়ে দিতে রাজী নন।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐক্যফ্রন্টের এক নেতা বলেন, বিএনপি বড় দল। দেশের অধিকাংশ জনগণ বিএনপির ভূমিকা দেখতে চায়। মূলত আগেই থেকেই বিএনপির পক্ষ থেকেই কেউ মুখপাত্র হবে এটা মোটামুটি ঠিক ছিলো। কিন্তু পরিবেশ-পরিস্থিতি বুঝে তা ঠিক করতে হয়েছে । এ বিষয়ে ভাইয়া (তারেক) এর নির্দেশ ছিলো।

বিএনপির দায়িত্বশীল সূত্রগুলো বলছে, তারেক মীর্জা ফখরুল, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, আবদুল আউয়াল মিন্টু এবং রুহুল কবির রিজভীর সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন। তিনি তাদের আবারও জ্বালাও পোড়াও আন্দোলনে নামতে হুকুম দিয়েছেন। তবে এদের মধ্যে রুহুল কবির রিজভী জ্বালাও পোড়ার পক্ষে থাকলেও মিন্টু এবং মওদুদের সাথে এ বিষয়ে বিতর্ক হয়েছে। এদিকে কামাল হোসেনের
গণভবনে আপ্যায়িত হওয়া এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সহোযোগিতামূলক মনোভাবেরও নিন্দা জানিয়েছেন। দলীয় সূত্র জানায়, তারেক বার বার জানতে চান গণভবনে কী তারা খেতে গিয়েছিলো কী না।

তারেকের প্রথম ক্ষোভ ছিলো বেগম খালেদা জিয়া ছাড়া সংলাপে যাওয়ার ব্যাপারে। তারেকের ভয় কামাল হোসেনের ওপর নির্ভর করলে বিএনপি হাইজ্যাক হতে পারে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী ‘কামাল হোসেনকে বিশ্বাসঘাতক বলে মন্তব্য করেছেন।

বিএনপির সূত্রগুলো বলছে, তারেক রহমান সিদ্ধান্ত দিয়েছেন, নির্বাচনে করে লাভ নেই। অপর দিকে এবারের নির্বাচন এক তরফা হবে না। বি চৌধুরির যুক্তফ্রন্ট ও ড.কামালের নেতৃত্বে বিএনপির অংশগ্রহণের সম্ভবনা রয়েছে। তাই আবারও নেতাকর্মীদের পেট্রোল বোমাসহ নানা প্রস্তুতি রাখতে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। তারেকের চূড়ান্ত ঘোষণায় বিএনপি অ্যাকশনে যাবে। দেশে অরাজগতা সৃষ্টি করতে না পারলে তারেকের দেশে আসা অনিশ্চিত বলে জানিয়েছে সূত্র গুলো।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here