জামাত-বিএনপির ছত্রছায়ায় টার্গেট কিলিংয়ের লক্ষ্য জঙ্গিদের

0
1

বিএনপির ছত্রছায়ায় টার্গেট কিলিংকের মাধ্যমে আসন্ন সংসদ নির্বাচনের আগে দেশকে অস্থিতিশীল করার প্রক্রিয়া চালাচ্ছে জঙ্গিরা। নির্বাচন সময় যতোই ঘনিয়ে আসছে জঙ্গিদের তত্পরতা ততোই বাড়ছে। নির্বাচনের আগে নাশকতাসহ যেকোন টার্গেট কিলিং চালাতে পারে জঙ্গিরা এমন আশঙ্কা করছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীগুলো।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, পরিকল্পনা অনুযায়ী মাঠপর্যায়ে টার্গেট কিলিং বাস্তবায়নের জন্য জঙ্গি সংগঠনগুলো কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। তাদের টার্গেটে রয়েছেন প্রভাবশালী মন্ত্রী, আমলা, আওয়ামী লীগ ঘরানার শীর্ষ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, বুদ্ধিজীবীসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গ। তাছাড়া বিদ্যুৎ স্টেশন, রাষ্ট্রীয় গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনায়ও জঙ্গিরা নাশকতা চালাতে পারে। এমনকি পুলিশ সদস্যদের মনোবল ভেঙে দিতে সিনিয়র পুলিশ অফিসারদের তালিকা করে টার্গেট কিলিংয়ের পরিকল্পনাও করছে তারা। সম্প্রতি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হওয়া জঙ্গিরা এমন তথ্য দিয়েছেন।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক কর্মকর্তা জানান, বিএনপির সাথে সক্ষ্যতা আছে এমন একটি মহল বিগত ২০১৩-১৪ সালের চেয়েও ভয়াবহ নাশকতা চালানোর পরিকল্পনা করছে। এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে জামায়াত-শিবিরের এক সময়ের রাজনীতি ঘরোনার জঙ্গিদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের কাছে টানছে। অপরদিকে যুদ্ধাপরাধীদের মামলায় জামায়াতের প্রথম শ্রেণির বেশ কয়েকজন নেতার মৃত্যুদন্ড দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনারও প্রতিশোধ নিতে একটি মহল এগিয়ে আসছে বলে জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত জঙ্গিরা জানিয়েছে। তারা নাশকতাসহ টার্গেট কিলিংয়ের পরিকল্পনা করছে। ইতিমধ্যে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতারকৃত জঙ্গিরা এসব তথ্য দিয়েছে। জঙ্গিরা এবার মরণ কামড় দিতে প্রস্তুত। আর ষড়যন্ত্র সফল করতে কাজ করছে জামায়াত-বিএনপির এক শ্রেণির নেতা। দেশ-বিদেশ থেকে টাকা দিয়ে জঙ্গিদের নিজেদের দলে ভেড়ানোর কাজ করছে জামায়াত। আর অত্যন্ত গোপনে ওই কাজটি রাজধানী থেকে শুরু করে একেবারে গ্রাম পর্যায় পর্যন্ত করা হচ্ছে। বিশেষ করে জামায়াত থেকে যারা বিএনপিতে গেছে তারাই বেশি তত্পর। ষড়যন্ত্র সফল করতে সব অপশক্তি ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে।

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here